বুধবার, মে ২২, ২০২৪

নিজ দেশে থেকে আমরা পরবাসী : মির্জা ফখরুল

by ঢাকাবার্তা
মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর

স্টাফ রিপোর্টার ।। 

নিজ দেশে থেকে আমরা পরবাসী হয়েছি মন্তব্য করে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, আওয়ামী লীগ দাবি করে তারা দেশ চালাচ্ছে। আসলে কী তারা দেশ চালাচ্ছে? তারা দেশ চালায় না। এক অদৃশ্য শক্তি দেশ চালাচ্ছে।  আর তাদের নির্দেশেই আজকে বাংলাদেশে তারা (আওয়ামী লীগ) মানুষের অধিকারগুলোকে কেড়ে নিয়েছে।

শনিবার রাজধানীর নয়াপল্টন বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে যুবদলের উদ্যোগে ‘বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার সুচিকিৎসাসহ নিঃশর্ত মুক্তি, ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার এবং সংগঠনের সভাপতি সুলতান সালাউদ্দিন টুকুসহ সকল রাজবন্দির নি:শর্ত মুক্তির দাবিতে বিক্ষোভ সমাবেশে তিনি এসব কথা বলেন।

আন্দোলন প্রসঙ্গে মির্জা ফখরুল বলেন, সাময়িকভাবে আন্দোলনে কিছুটা ভাটা পড়তে পারে। অনেকে বলেন, আবার আন্দোলন শুরু। আন্দোলন চলছে। বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া যখন বন্দি, ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান দেশে ফিরতে পারেন না, টুকু (সুলতান সালাউদ্দিন টুকু) জেলে তখন তো আন্দোলন চলছেই। প্রতিটি কারারুদ্ধ নেতাকর্মী আন্দোলন করছেন।
আওয়ামী লীগের নেতাদের উদ্দেশে তিনি বলেন, লজ্জা করে না। শরম বলতে তো আর কিছু নাই। লজ্জা শরমের মাথা খেয়ে ফেলেছেন।

এমনভাবে কথা বলেন, এটাকে তারা তাদের পৈতৃক সম্পদ মনে করেন। তারা যেভাবে খুশি সেভাবে ব্যবহার করবেন। জনগণের যে চাহিদা সেদিকে তাকান না। আমরা এখনো বলি,  সময় আছে, জনগণের দেয়ালে পিঠ ঠেকে গেছে। সেই জনগণকে বেরিয়ে আসতে বাধ্য করবেন না, উত্তাল তরঙ্গ সৃষ্টি করে আপনাদের মসনদকে ভেঙে চুরমার করে দিতে।

২৮শে অক্টোবরের সমাবেশ পণ্ড করার ঘটনা তুলে ধরে ফখরুল বলেন, আজকেও চেষ্টা করেছিলেন। আজকে একটা পটকা ফুটিয়েছেন। সেটা কে ফুটিয়েছে আমরা বুঝি না? দেশের মানুষ বুঝে না? আবারও সরকার দলীয় লোকেরা সেই অবস্থা তৈরি করতে চেয়েছে।

তরুণ ও যুবকদের উদ্দেশে তিনি বলেন, কোন দেশের মুক্তি হয় না, যদি তরুণ ও যুবকরা এগিয়ে না আসে। শুধু ঠিক বললে এবং জেল খাটলে চলবে না। আপনাদের বেরিয়ে আসতে হবে। রাজপথে জনগণকে নিয়ে চলে আসতে হবে। সেই জনগণকে নিয়ে আরো শক্তিশালী দৃঢ় প্রতিরোধ গড়ে তুলতে হবে। অন্যথায় স্বাধীনতা ও সার্বভৌমত্ব জলাঞ্জলে যাবে। তাই আর বিলম্ব নয়। নিজেদেরকে শক্তিশালী করতে হবে। আজকে ডাক এসেছে দেশ থেকে, দেশমাতৃকা থেকে।

নেতাকর্মীদের সাজা দেয়ার প্রসঙ্গে বিএনপি মহাসচিব বলেন, কোন শুনানি ছাড়া ২ হাজার মানুষকে সাজা দিয়েছেন। এটা কোন আইনের শাসন হতে পারে না। বিচারবিভাগের স্বাধীনতা নাই। আপনারা (সরকার) কেড়ে নিয়েছেন। নির্বাচন ব্যবস্থাকে সরকার সম্পূর্ণভাবে গিলে ফেলেছে বলেও মন্তব্য করেন মির্জা ফখরুল। বলেন, আওয়ামী লীগের নেতারা অনেক কথা বলেন। শুক্রবারই তাদের সম্মানিত সাধারণ সম্পাদক (ওবায়দুল কাদের) বলেছেন, আবার সন্ত্রাস সৃষ্টির চেষ্টা করবেন না। তাহলে এবার ডাবল শিক্ষা দিয়ে দিবো। বিএনপি কখনোই সন্ত্রাস করে না।  বিএনপির সন্ত্রাসের ইতিহাস নেই। সন্ত্রাসের ইতিহাস আপনাদের। সন্ত্রাসের মধ্যে দিয়েই আপনাদের জন্ম।

তিনি আরও বলেন, যখন আওয়ামী লীগে মওলানা ভাসানী সভাপতি ছিলেন। মওলানা ভাসানীকে আপনারা বিতাড়িত করে দিয়ে, মেরে তাড়িয়ে দিয়ে তাকে রূপমহল সিনেমা হল থেকে বের করে দিয়েছিলেন। তারপরে সেদিন মওলানা ভাসানী ন্যাপ গঠন করেছিলেন। সেই ইতিহাস আমরা ভুলে যাই নাই। পূর্ব পাকিস্তান আমলে প্রাদেশিক পার্লামেন্ট ছিলো, সেই পার্লামেন্টে ডেপুটি স্পিকারকে আপনারাই পিটিয়ে পিটিয়ে হত্যা করেছিলেন। আমরা ভুলে যাইনি। আমরা ভুলে যায়নি, আপনারা সন্ত্রাসের মধ্যে দিয়ে এদেশের জনগণের ন্যায় সঙ্গত দাবির আন্দোলনকে গত ১৮ বছর ধরে দমিয়ে দিচ্ছেন।

You may also like

প্রকাশক : জিয়াউল হায়দার তুহিন

সম্পাদক : হামীম কেফায়েত

গ্রেটার ঢাকা পাবলিকেশন
নিউমার্কেট সিটি কমপ্লেক্স
৪৪/১, রহিম স্কয়ার, নিউমার্কেট, ঢাকা ১২০৫

যোগাযোগ : +8801712813999

ইমেইল : news@dhakabarta.net