বৃহস্পতিবার, জুলাই ২৫, ২০২৪

বজ্রপাত: লক্ষণ এবং সতর্কতা

by ঢাকাবার্তা
বজ্রপাতের একটি দৃশ্য

ফিচার ডেস্ক ।। 

বজ্রপাত একটি প্রাকৃতিক ঘটনা যা প্রায় পৃথিবীর সব অঞ্চলে ঘটতে পারে এবং মানব জীবনের জন্য বিশেষভাবে ঝুঁকিপূর্ণ। এই ঘটনার সময়ে বজ্রগুলি আকাশ থেকে পৃথিবীর উপরে পড়তে পারে এবং এর ফলে জীবন্ত বস্তুর জন্য মৃত্যুর ঝুঁকি বৃদ্ধি পাওয়া যেতে পারে। এই লেখাটি বজ্রপাতের লক্ষণ, তার সময়ে করণীয় এবং এটির সম্পর্কিত প্রাথমিক জ্ঞান প্রদান করতে উদ্দীপ্ত করা হয়েছে।

বজ্রপাতের লক্ষণ

বজ্রপাতের সম্ভাবনা বোঝার জন্য কয়েকটি লক্ষণ রয়েছে, যেগুলো লক্ষ্য করলে আপনি সতর্ক হতে পারেন:

কালো মেঘ: গাঢ় কালো বা ধূসর মেঘ বজ্রপাতের পূর্বাভাস দিতে পারে। বিশেষ করে যদি মেঘগুলো দ্রুত উপরে উঠে যায়।

বজ্রধ্বনি ও বিদ্যুৎ চমক: আকাশে বিদ্যুৎ চমকানো এবং বজ্রধ্বনি শোনা গেলে বজ্রপাতের সম্ভাবনা বেশি থাকে। বিদ্যুৎ চমকানোর পর বজ্রধ্বনি শোনার মধ্যে সময়ের ব্যবধান কম থাকলে বজ্রপাত কাছাকাছি ঘটছে বলে বোঝা যায়।

বাতাসের তীব্রতা: হঠাৎ করে বাতাসের গতি বৃদ্ধি পেলে এবং ঠান্ডা বাতাস প্রবাহিত হলে বজ্রপাত হতে পারে।

দ্রুত তাপমাত্রার পরিবর্তন: বৃষ্টির আগে বা সময় তাপমাত্রা যদি হঠাৎ করে কমে যায়, তবে বজ্রপাতের সম্ভাবনা রয়েছে।

ওয়েদার রাডার ও এপ্লিকেশন: আধুনিক প্রযুক্তির সাহায্যে মোবাইল অ্যাপ্লিকেশন বা ওয়েদার রাডারের মাধ্যমে বজ্রপাতের পূর্বাভাস পাওয়া যায়।

বারোমেট্রিক প্রেশার: যদি বৃষ্টির আগে বা সময় দ্রুত বায়ুর চাপ কমে যায়, তবে বজ্রপাতের সম্ভাবনা থাকে।

বজ্রপাতের সময় করণীয়

বজ্রপাতের সময় কিছু সতর্কতা মেনে চললে নিজের ও অন্যদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করা যায়:

অন্তর্গত স্থানে আশ্রয় নিন: বজ্রপাতের সময় খোলা জায়গায় থাকা বিপজ্জনক। কোনো ভবনের ভেতরে কিংবা গাড়ির মধ্যে আশ্রয় নিন।

ধাতব বস্তু এড়িয়ে চলুন: ধাতব বস্তু বজ্রপাত আকর্ষণ করে। বজ্রপাতের সময় ধাতব বস্তু থেকে দূরে থাকুন এবং ধাতব ছাউনি, বেড়া, পোস্ট, তার ইত্যাদি স্পর্শ করবেন না।

জলাশয় থেকে দূরে থাকুন: জলাশয়, পুকুর, নদী, লেক বা সুইমিং পুলের আশেপাশে থাকা ঝুঁকিপূর্ণ। জলাশয় থেকে দূরে থাকুন।

বৈদ্যুতিক যন্ত্রপাতি বন্ধ রাখুন: বজ্রপাতের সময় টিভি, কম্পিউটার, মোবাইল চার্জার, মাইক্রোওয়েভ ইত্যাদি বৈদ্যুতিক যন্ত্রপাতি বন্ধ রাখুন এবং এদের থেকে দূরে থাকুন।

উঁচু জায়গা এড়িয়ে চলুন: গাছ, টাওয়ার, পাহাড় বা খোলা জায়গায় থাকা ঝুঁকিপূর্ণ। যত সম্ভব উঁচু জায়গা এড়িয়ে চলুন।

নিরাপদ অবস্থানে থাকুন: বজ্রপাতের সময় জানালা ও দরজা বন্ধ রাখুন এবং নিরাপদ অবস্থানে থাকুন। প্রয়োজনে মাটিতে বসে পড়ুন এবং শরীরকে যত সম্ভব ছোট রাখার চেষ্টা করুন।

অন্তর্গত সুরক্ষা ব্যবস্থা: যদি কোনো ভবনে থাকেন, তবে সেখানকার সুরক্ষা ব্যবস্থা যেমন বজ্র নিরোধক (লাইটনিং অ্যারেস্টর) ঠিক আছে কিনা তা নিশ্চিত করুন।

সতর্কতা

আবহাওয়া পূর্বাভাস শুনুন: স্থানীয় আবহাওয়া দপ্তর থেকে সতর্কতা ও পূর্বাভাস শুনুন এবং তা অনুসরণ করুন।

বিপদকালীন কিট রাখুন: জরুরি অবস্থার জন্য একটি বিপদকালীন কিট প্রস্তুত রাখুন, যাতে টর্চলাইট, রেডিও, প্রাথমিক চিকিৎসার সরঞ্জাম, পানির বোতল, শুকনো খাবার ইত্যাদি থাকে।

পরিবার ও প্রিয়জনদের জানিয়ে রাখুন: বজ্রপাতের সময় পরিবারের সদস্যদের ও প্রিয়জনদের নিরাপদ স্থানে থাকার পরামর্শ দিন এবং তাদের সুরক্ষার জন্য প্রস্তুত করুন।

বজ্রপাতের সময় সতর্কতা ও নিরাপত্তা ব্যবস্থা মেনে চললে জীবন ও সম্পদের ক্ষতি কমানো সম্ভব। আপনার এবং আপনার পরিবারের সুরক্ষার জন্য এই নির্দেশনাগুলি মেনে চলুন।

You may also like

প্রকাশক : জিয়াউল হায়দার তুহিন

সম্পাদক : হামীম কেফায়েত

গ্রেটার ঢাকা পাবলিকেশন
নিউমার্কেট সিটি কমপ্লেক্স
৪৪/১, রহিম স্কয়ার, নিউমার্কেট, ঢাকা ১২০৫

যোগাযোগ : +8801712813999

ইমেইল : news@dhakabarta.net