শুক্রবার, জুলাই ১৯, ২০২৪

বিচারালয়কে যেন কোনোভাবে রাজনীতিকীকরণ করা না হয়: প্রধান বিচারপতি

বক্তব্যে প্রধান বিচারপতি বলেন, ‘আমি চাইবো বিচার বিভাগ ও বিচারালয়কে যেন কোনোভাবে রাজনীতিকীকরণ করা না হয়।

by ঢাকাবার্তা ডেস্ক
বিচারালয়কে যেন কোনোভাবে রাজনীতিকীকরণ করা না হয়: প্রধান বিচারপতি

একটি দুর্নীতিমুক্ত বিচারব্যবস্থা নিশ্চিত করতে সর্বোচ্চ চেষ্টা করে যাবেন বলে প্রত্যাশা ব্যক্ত করেছেন নতুন প্রধান বিচারপতি ওবায়দুল হাসান। রবিবার (৮ অক্টোবর) প্রধান বিচারপতি হিসেবে এজলাসের বিচারিক কার্যক্রমের প্রথম দিনে অ্যাটর্নি জেনারেল ও সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সংবর্ধনার জবাবে তিনি এ প্রত্যাশা ব্যক্ত করেন।

সংবর্ধনায় প্রধান বিচারপতির জীবনী তুলে ধরে শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানান অ্যাটর্নি জেনারেল এ এম আমিন উদ্দিন ও সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সভাপতি মো. মোমতাজ উদ্দিন ফকির।

পরে দেওয়া বক্তব্যে প্রধান বিচারপতি বলেন, ‘আমি চাইবো বিচার বিভাগ ও বিচারালয়কে যেন কোনোভাবে রাজনীতিকীকরণ করা না হয়। এখানে বিচারক ও আইনজীবীদের সম্মিলিত ও মেধাপুষ্ট দায়িত্ব পালনের মাধ্যমেই কেবল সুবিচারের লক্ষ্য অর্জিত হতে পারে এবং তবেই বিচার বিভাগের মর্যাদা অক্ষুণ্ণ থাকবে। আমাদের সুপ্রিম কোর্টের এই বিচার অঙ্গন পারস্পরিক সহনশীলতা, সহমর্মিতা ও ভালবাসায় আলোকিত হোক এটিই আমার প্রত্যাশা।’

তিনি আরও বলেন, ‘একটু অপ্রিয় হলেও একটি কথা বলতে চাই, কোনও বিষয়ে ভালোভাবে না জেনে বা যথেচ্ছভাবে বিচারক ও আদালত সম্পর্কে কটূ মন্তব্য মোটেই সভ্যতার ইঙ্গিত বহন করে না। সাবেক প্রধান বিচারপতি হাবিবুর রহমানের ভাষায় আমিও উচ্চারণ করতে চাই— কোনও বিচারকই সমালোচনার ঊর্ধ্বে নন। সভ্যজগতে ভব্য সমালোচনার একটা অবকাশ রয়েছে। বিচারকের রায়ের সমালোচনা করার অধিকার বাকস্বাধীনতার এক অংশ বলে আমি মনে করি। আইনের দ্বারা আরোপিত যুক্তিসঙ্গত বাধানিষেধ সাপেক্ষে সংবিধানে এই বাকস্বাধীনতার নিশ্চয়তা বিধান করা হয়েছে।’

দেশে যে মুক্ত সাংবাদিকতা বিরাজ করছে, তার ভাবমূর্তি অক্ষুণ্ন রাখার জন্যে যথেচ্ছা সমালোচনার পরিবর্তে ‘জেনেশুনে, ওয়েলইনফরমড’ হয়ে সমালোচনার প্রয়োজন বলে উল্লেখ করেন প্রধান বিচারপতি। তিনি বলেন, ‘তবে কেউ যদি স্বাধীনতার অপব্যবহার করে তা সংবাদ মাধ্যমই হোক, আইনজীবীই হোক বা যে কেউ হোক, তাকে শায়েস্তা করার জন্য আদালতের হাত যথেষ্টই লম্বা।’

দুর্নীতি প্রসঙ্গে প্রধান বিচারপতি বলেন, ‘সংবিধানের প্রতি লক্ষ্য রেখে বিচার প্রশাসনকে রাখতে হবে স্বচ্ছ, দুর্নীতিমুক্ত, স্বাধীন এবং সোশ্যাল জাস্টিস তত্ত্বের সঙ্গে সামঞ্জস্যপূর্ণ। একটি দুর্নীতিমুক্ত বিচারব্যবস্থা দেশ ও জাতির জন্য গর্বের। আমার দায়িত্ব পালনকালে আমার সতীর্থ বিচারকরা এবং আইনজীবীদের সুচিন্তিত পথ ধরে একটি দুর্নীতিমুক্ত বিচারব্যবস্থা নিশ্চিত করতে সর্বোচ্চ চেষ্টা করে যাবো। আমি আমাদের বিচার ব্যবস্থাকে আধুনিক করে গড়ে তুলতে এবং সাধারণ মানুষের জন্য সহজলভ্য করতে একটি দীর্ঘমেয়াদি জুডিসিয়াল প্ল্যান তৈরি করতে চাই। আমার উত্তরসূরিরা যেন এই প্ল্যান বা পরিকল্পনা ধরে আগামীতে এগিয়ে যেতে পারেন।’

এদিকে ইউনাইটেড ল’ইয়ার্স ফ্রন্ট নামের সরকারবিরোধী একটি আইনজীবী জোট সংবর্ধনায় অংশ না নিয়ে সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতি ভবনের সামনে বিক্ষোভ প্রদর্শন করে।

প্রসঙ্গত, গত ১২ সেপ্টেম্বর আপিল বিভাগের বিচারপতি ওবায়দুল হাসানকে বাংলাদেশের ২৪তম প্রধান বিচারপতি হিসেবে নিয়োগ দেন রাষ্ট্রপতি। গত ২৬ অক্টোবর তিনি শপথ গ্রহণ করেন।

 

আরও পড়ুনঃ প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে জ্যাক সুলিভানের বৈঠক কেন মাঝপথে থেমে যায়?

You may also like

প্রকাশক : জিয়াউল হায়দার তুহিন

সম্পাদক : হামীম কেফায়েত

গ্রেটার ঢাকা পাবলিকেশন
নিউমার্কেট সিটি কমপ্লেক্স
৪৪/১, রহিম স্কয়ার, নিউমার্কেট, ঢাকা ১২০৫

যোগাযোগ : +8801712813999

ইমেইল : news@dhakabarta.net