শুক্রবার, জুলাই ১৯, ২০২৪

সেমিতে ভারত, অজিদের ভাগ্য বাংলাদেশ-আফগানিস্তান ম্যাচে

by ঢাকাবার্তা
ভারত বনাম অস্ট্রেলিয়া ম্যাচের একটি দৃশ্য

ডেস্ক রিপোর্ট ।। 

সেমিফাইনালে ওঠার আশা টিকিয়ে রাখতে সেন্ট লুসিয়ায় সুপার এইটে ভারতের বিপক্ষে আজকের ম্যাচটি মহাগুরুত্বপূর্ণ ছিল অস্ট্রেলিয়ার জন্য। এমন ম্যাচে ভারত ৫ উইকেটে ২০৫ রান তোলার পর অস্ট্রেলিয়াও শুরুতে খুনে মেজাজের ব্যাটিংয়ে জবাব দেওয়ার চেষ্টা করেছে। কিন্তু শেষ পর্যন্ত আর পারেনি। ২০ ওভারে ৭ উইকেটে ১৮১ রানে থেমেছে অস্ট্রেলিয়া। ২৪ রানের জয়ে গ্রুপ ১–এর চ্যাম্পিয়ন দল হিসেবে সেমিফাইনালে ইংল্যান্ডের মুখোমুখি হওয়া নিশ্চিত করেছে ভারত।

গ্রুপ ১ থেকে ৩ ম্যাচের সব কটি জিতে মোট ৬ পয়েন্ট নিয়ে সেমিফাইনালে উঠল রোহিত শর্মার দল। অস্ট্রেলিয়া ৩ ম্যাচে ২ হার ও ১ জয়ে ২ পয়েন্ট নিয়ে এই গ্রুপে দ্বিতীয়। তাদের রানরেট –০.৩৩১। ২ ম্যাচে ১ জয়ে ২ পয়েন্ট পাওয়া আফগানিস্তান (–০.৬৫০) তৃতীয়। ২ ম্যাচে জয়হীন বাংলাদেশ (–২.৪৮৯) এই গ্রুপে চতুর্থ।

কিংসটাউনে আজ বাংলাদেশ সময় ভোর সাড়ে ছয়টায় শুরু হতে যাওয়া বাংলাদেশ-আফগানিস্তান ম্যাচের ফলে অস্ট্রেলিয়ার ভাগ্য নির্ভর করছে। আফগানিস্তান জিতলে টুর্নামেন্ট থেকে ছিটকে পড়বে অস্ট্রেলিয়া। কিংবা বাংলাদেশ যদি বড় ব্যবধানে জেতে, তাহলেও বাদ পড়ার সম্ভাবনা রয়েছে মিচেল মার্শের দলের।

রান তাড়ায় অর্শদীপ সিংয়ের করা অস্ট্রেলিয়ার ইনিংসে ষষ্ঠ বলে ডেভিড ওয়ার্নার (৬) আউট হলেও রানের গতি কমতে দেননি তিনে নামা মিচেল মার্শ ও হেড। পাওয়ারপ্লের ৬ ওভার শেষে অস্ট্রেলিয়ার সংগ্রহ ছিল ১ উইকেটে ৬৫। মার্শ ২ ছক্কা ও ৩ চারে ২৮ বলে ৩৭ রান করে নবম ওভারে আউট হলেও হেড চড়াও হওয়া থামাননি। দ্বিতীয় উইকেটে মার্শ-হেডের ৪৮ বলে ৮১ রানের জুটি অস্ট্রেলিয়াকে জয়ের পথেই নিয়ে যাচ্ছিল। হেড উইকেটের চারপাশেই শট খেলে ২৪ বলে তুলে নেন অর্ধশতক।

শেষ ১০ ওভারে জয়ের জন্য ১০৭ রান দরকার ছিল অস্ট্রেলিয়ার। ১৪তম ওভারে কুলদীপ যাদবের স্পিনে আউট হন ১২ বলে ১৯ রান করা গ্লেন ম্যাক্সওয়েল। পরের ওভারে মার্কাস স্টয়নিসও (২) আউট হওয়ার পর ম্যাচ খানিকটা হেলে পড়ে ভারতের পক্ষে। জয়ের জন্য শেষ ৫ ওভারে ৬৫ রান দরকার ছিল অস্ট্রেলিয়ার। হাতে ৪ উইকেট।

ওয়ার্নারকে ফিরিয়ে সতীর্থদের সঙ্গে আর্শদীপের উদ্‌যাপন

এখান থেকে ম্যাচটা অস্ট্রেলিয়ার হাত থেকে ধীরে ধীরে ফসকে যায়। সে জন্য ভারতের দুই পেসার অর্শদীপ ও যশপ্রীত বুমরার প্রশংসা প্রাপ্য। ১৬তম ওভারে অর্শদীপ মাত্র ৭ রান দেওয়ায় চাপে পড়ে অস্ট্রেলিয়া। পরের ওভারেই স্লোয়ারে ফলটা তুলে নেন বুমরা। ৪ ছক্কা ও ৯ চারে ৪৩ বলে ৭৬ রান করা হেড তাঁকে মারতে গিয়ে ক্যাচ দেন। ৩ বল পরই ১৮তম ওভারে অর্শদীপের প্রথম বলে ম্যাথু ওয়েডও (১) আউট হন। টিম ডেভিড এই ওভারে অর্শদীপকে একটি চার ও ছক্কা মারলেও পঞ্চম বলে আউট হন। ১৪ রান দিলেও গুরুত্বপূর্ণ ২টি উইকেট তুলে নিয়ে দারুণ এক ওভার করেন অর্শদীপ।

জয়ের জন্য শেষ ২ ওভারে ৩৯ রান দরকার ছিল অস্ট্রেলিয়ার। মিচেল স্টার্ক ও প্যাট কামিন্স মিলে এই কঠিন লক্ষ্য পাড়ি দিতে পারেননি। বুমরা ১৯তম ওভারে দেন ১০ রান। হার্দিক পান্ডিয়ার করা শেষ ওভারে জয়ের জন্য ২৯ রানের খুব কঠিন লক্ষ্য টপকে যেতে পারেননি স্টার্ক ও কামিন্স।

টস হেরে আগে ব্যাটিংয়ে নামা ভারতের হয়ে ঝড় বইয়ে দেন অধিনায়ক রোহিত শর্মা। ৫ ওভার শেষে ভারতের রান যখন ১ উইকেটে ৫২, তখন রোহিতের একারই ১৯ বলে ৫০! এভাবেই চলছিল। শেষ পর্যন্ত ১১.২ ওভারে রোহিত যখন আউট হন, ভারতের সংগ্রহ ৩ উইকেটে ১২৭। এর মধ্যে রোহিতের একারই ৪১ বলে ৯২। এবারের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে দ্রুততম অর্ধশতকের রেকর্ড এখন তাঁর। বিরাট কোহলি (৫ বলে ০) দ্বিতীয় ওভারে জশ হ্যাজলউডের বলে আউট হওয়ার পরই শুরু হয় রোহিত-ঝড়।

৪৩ বলে ৭৬ রানের ইনিংস খেলেও অস্ট্রেলিয়াকে জেতাতে পারেননি হেড

মিচেল স্টার্কের করা তৃতীয় ওভারে ভারত তুলেছে ২৯ রান, এর মধ্যে ৪ ছক্কা ও ১ চারে রোহিত একাই তুলেছেন ২৮! অস্ট্রেলিয়ার হয়ে স্টার্কের এটাই সবচেয়ে খরুচে ওভার। অবশ্য ৮ ছক্কা ও ৭ চারে সাজানো রোহিতের ইনিংসটি শেষ হয়েছে মিচেল স্টার্কের ইয়র্কারে বোল্ড হয়ে। এই পথে ঋষভ পন্তের সঙ্গে দ্বিতীয় উইকেটে ৩৮ বলে ৮৫ রানের জুটি গড়ার পথে পন্তের অবদান ১৫ বলে ১৫, রোহিতের ২৪ বলে ৭০!

রোহিত ফেরার পরও কমেনি ভারতের রানের গতি। কারণ, চতুর্থ উইকেটে সূর্যকুমার যাদব ও শিবম দুবের ১৯ বলে ৩২ রানের জুটি। এরপর পঞ্চম উইকেটে হার্দিক পান্ডিয়া ও শিবম দুবের ২৫ বলে ৩৫ রানের জুটি। অস্ট্রেলিয়ার বোলারদের মধ্যে শুধু হ্যাজলউডকেই কেউ সেভাবে মারতে পারেননি।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

ভারত: ২০ ওভারে ২০৫/৫ (রোহিত ৯২, সূর্যকুমার ৩১, দুবে ২৮, পান্ডিয়া ২৭, পন্ত ১৫; হ্যাজলউড ১/১৪, স্টার্ক ২/৪৫, স্টয়নিস ২/৫৬, জাম্পা ০/৪১)

অস্ট্রেলিয়া: ২০ ওভারে ১৮১/৭ (হেড ৭৬, মার্শ ৩৭, ম্যাক্সওয়েল ২০, ডেভিড ১৫, কামিন্স ১১* ; অর্শদীপ ৩/৩৭, কুলদীপ ২/২৪, অক্ষর ১/২১, বুমরা ১/২৯, জাদেজা ০/১৭)

ফল: ভারত ২৪ রানে জয়ী।

ম্যাচসেরা: রোহিত শর্মা (ভারত)।

You may also like

প্রকাশক : জিয়াউল হায়দার তুহিন

সম্পাদক : হামীম কেফায়েত

গ্রেটার ঢাকা পাবলিকেশন
নিউমার্কেট সিটি কমপ্লেক্স
৪৪/১, রহিম স্কয়ার, নিউমার্কেট, ঢাকা ১২০৫

যোগাযোগ : +8801712813999

ইমেইল : news@dhakabarta.net