মঙ্গলবার, জুন ২৫, ২০২৪

৪ ম্যাচেই ‘সবচেয়ে প্রিয়’ টেস্টকে বিদায় ক্লসেনের

সাদা বলের সংস্করণে দক্ষিণ আফ্রিকার হয়ে খেলা চালিয়ে যাবেন এই কিপার-ব্যাটসম্যান।

by ঢাকাবার্তা ডেস্ক
৪ ম্যাচেই ‘সবচেয়ে প্রিয়’ টেস্টকে বিদায় ক্লসেনের

খেলা ডেস্ক।।

টেস্ট দলে নিয়মিত জায়গা পাচ্ছিলেন না হাইনরিখ ক্লসেন। চার বছরে এই সংস্করণে খেলেন কেবল চারটি ম্যাচ। কোচের ভবিষ্যৎ পরিকল্পনায় থাকলেও ‘সবচেয়ে প্রিয়’ সংস্করণ লাল বলের ক্রিকেট থেকে শেষ পর্যন্ত সরে দাঁড়ানোর সিদ্ধান্তই নিলেন দক্ষিণ আফ্রিকার এই কিপার-ব্যাটসম্যান। এক বিবৃতিতে সোমবার টেস্ট ক্রিকেট থেকে অবসরের ঘোষণা দেন ক্লসেন। সাদা বলের সংস্করণে দক্ষিণ আফ্রিকার হয়ে খেলা চালিয়ে যাবেন ৩২ বছর বয়সী এই ক্রিকেটার।

২০১৯ সালের অক্টোবরে ভারতে সফরে টেস্ট অভিষেক হয় ক্লসেনের। ক্যারিয়ারের পরের টেস্ট খেলতে তার লেগে যায় তিন বছরের বেশি সময়। দ্বিতীয় টেস্টটি খেলেন তিনি গত বছরের জানুয়ারিতে, অস্ট্রেলিয়া সফরে। মার্চে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে জোহান্সবার্গে খেলা টেস্টটি হয়ে রইল এই সংস্করণে তার শেষ ম্যাচ। অল্প কয়েকটি ম্যাচ খেলার সুযোগ পেয়েছেন ক্লসেন, তা ঠিক। তবে একটিও কাজে লাগাতে পারেননি তিনি। ৮ ইনিংসে এই সংস্করণে তার সর্বোচ্চ রান ৩৫। সদ্য সমাপ্ত ভারতের বিপক্ষে ঘরের মাঠের সিরিজে তাই জায়গা হয়নি ক্লসেনের। ঘরোয়া প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে ভালো করে দলে ফেরেন কাইল ভেরেইনা।

ক্লসেনকে দলে না রাখলেও, তাকে ভবিষ্যৎ পরিকল্পনায় রাখার কথা বলেছিলেন দক্ষিণ আফ্রিকার কোচ শুকরি কনরাড। চলতি বছরের শেষ দিকে ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও বাংলাদেশ সফরে ক্লসেনকে খেলানোর উজ্জ্বল সম্ভাবনার কথাও বলেছিলেন তিনি। কিন্তু অনেক আগেই সবকিছুর ইতি টেনে দিলেন এই ক্রিকেটার। কী কারণে, হুট করে টেস্ট থেকে অবসরের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন ক্লসেন, তা খোলাসা করেননি। আইপিএল, দা হান্ড্রেড, মেজর লিগ ক্রিকেটের সঙ্গে চুক্তি আছে তার। তাই বলাই যায়, ক্যারিয়ারের এই পর্যায়ে এসে টি-টোয়েন্টি লিগগুলোয় বেশি মনোযোগ দিতে চান তিনি।

ক্লসেন বলেছেন, প্রিয় সংস্করণ ছাড়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া তার জন্য অনেক কঠিন ছিল। সঠিক সিদ্ধান্ত নিচ্ছি কিনা, এটা ভাবতে ভাবতে কয়েকটি নির্ঘুম রাত কাটানোর পর লাল বলের ক্রিকেট থেকে অবসরের সিদ্ধান্ত নিয়েছি। খুবই কঠিন সিদ্ধান্ত ছিল, কারণ এখন পর্যন্ত এটা (টেস্ট) আমার সবচেয়ে পছন্দের সংস্করণ।”

“মাঠে ও মাঠের বাইরে লড়াইগুলো আমাকে আজকের ক্রিকেটার করে তুলেছে। দুর্দান্ত একটি পথচলা ছিল এবং দেশের প্রতিনিধিত্ব করতে পেরে আমি আনন্দিত। এখন পর্যন্ত পাওয়া ক্যাপগুলোর মধ্যে ব্যাগি টেস্ট ক্যাপটিই আমার কাছে সবচেয়ে মূল্যবান।”

২০২৪ সালে আরও ৭টি টেস্ট খেলবে দক্ষিণ আফ্রিকা- ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও বাংলাদেশ সফরে দুটি করে, ঘরের মাঠে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে দুটি আর একটি পাকিস্তানের সঙ্গে। ২০২৫ সালের জানুয়ারি থেকে ২০২৬ সালের সেপ্টেম্বর পর্যন্ত ঘরের মাঠে কোনো টেস্ট নেই দক্ষিণ আফ্রিকার! ২০২৩-২০২৫ টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের চক্রে তারা কেবল দুই ম্যাচের সিরিজ খেলবে। ধারণা করা হচ্ছে, দীর্ঘ পরিসরের ম্যাচের অভাবের কারণে অন্য সংস্করণকে প্রাধান্য দিতে নতুন করে ভাবছে দক্ষিণ আফ্রিকার খেলোয়াড়রা।

 

আরও পড়ুন: থ্যাঙ্কস এন্ড গুডবাই, ডেভিড ওয়ার্নার!

You may also like

প্রকাশক : জিয়াউল হায়দার তুহিন

সম্পাদক : হামীম কেফায়েত

গ্রেটার ঢাকা পাবলিকেশন
নিউমার্কেট সিটি কমপ্লেক্স
৪৪/১, রহিম স্কয়ার, নিউমার্কেট, ঢাকা ১২০৫

যোগাযোগ : +8801712813999

ইমেইল : news@dhakabarta.net